রক মনু

৫ জানু ২০১৪

আওয়ামী লীগরে তো আর এনডোর্স করতে পারছেন না; আপনারা তো দূর, ঘোর আওয়ামী লীগারও এই নির্বাচনরে প্রকাশ্যে এনডোর্স করতে পারছে না–সমাজে মুখ দেখাবার ব্যাপারটা নিয়া তাদেরো ভাবতে হয় তো! কী করবেন এখন? কিছু চ্যানেল দেখলাম হাসির নাটক দেখাচ্ছিলো দুপুরে; হাসতে পারেন আপনারা নাটক দেইখা, হাসাবার চেষ্টাও করতে পারেন, কৌতুক বলাবলি করতে পারেন।

বিচার চাওয়ার জোসে হয়তো খেয়াল করেন নাই– মহাজোট সরকারের এমন এমন কাজ অনুমোদন করে যাচ্ছিলেন যে ইতিহাসে বেকুব বা দালালের দুর্দান্ত উদাহরণ হইতে পারবেন। জাতীয় পাপমোচনের নেশার বেখেয়ালে জাতীয় স্বার্থের এমন সর্বনাশ আর কেউ কখনো করতে পারছিলো বলে মনে হয় না।

-------------------------

অথচ ওয়ার ক্রাইমের বিচার চাওয়ার হক অবশ্যই থাকবার কথা আপনাদের, সকল নৈতিকতায় প্রায় যে কোন ক্রাইমের বিচার চাওয়া ভালো ঘটনা একটা! শাহবাগের নেতারা লীগের দালাল বলে অভিষিক্ত হৌক ইতিহাসে, কিন্তু ওয়ার ক্রাইমের বিচার চাইবার পুরা এসেন্সটাই যাতে আওয়ামী দূরভিসন্ধি হিসাবে লিখিত/চিহ্নিত/অভিষিক্ত হইতে না পারে–সেই চেষ্টা করা দরকার আপনাদের।

১০০ পারেন, ৫০০ পারেন–একসাথে অন্তত বিবৃতি দেন একটা; বলেন যে, আপনারা শাহবাগের এসেন্স, আপনারা ওয়ারক্রাইমের বিচার চান এবং আপনারা আওয়ামী লীগ থেকে ১০০% ডিস-অ্যাসোসিয়েট করছেন।

কিন্তু এতেই পার পাবেন বলে মনে হচ্ছে না; তারচে বড়ো কথা, এই নির্বাচন বা নির্বাচনোত্তর সরকারের গ্রহণযোগ্যতা যেহেতু একদমই থাকবে না, তাই চলমান বিচারটা গ্রহণযোগ্যতা পুরোটা হারাইয়া ফেলবে আসলে!

আপনাদের উচিত হবে শাহবাগ থেকে বিচার চাইয়া একটা মিছিল বের করা; মিছিল কইরা খালেদা জিয়ার বাসায় যাওয়া, খালেদা জিয়ার কাছে বিচার চাইয়া স্মারকলিপি দেওয়া, বিএনপির আন্দোলনে যোগ দেবার জন্য আপনাদের শর্ত নিয়া দর কষাকষি করা।

মনে রাখবেন, আপনারা আওয়ামী লীগ নন, কেননা ১৯৯৬ সালে ক্ষমতা লাভের পরে আপনারা দাবী উত্থাপন করলেও বিচার শুরু করে নাই আ. লীগ; আপনারা বিএনপি নন, আপনারা বিচার চাইছেন, বিএনপি সাঁড়া দেয় নাই ২০০৮-এর নির্বাচনী ইশতেহারে। আপনারা কতগুলি বিচার চাওয়া মানুষ, যাঁরা ক্ষমতাসম্ভব দলগুলির কাছে যাইতে পারেন বিচার চাইয়া, দলগুলি সাঁড়া দিতে পারে, নাও পারে; কিন্তু কেউ সাঁড়া দেবার ভান করে নিজেদের লুটপাট, গণতন্ত্রবিরোধী চূড়ান্ত স্বেচ্ছাচার বৈধ করবার চেষ্টা করলে বরদাশত করবেন না আপনারা।

অবশ্য এই রকম স্টেটমেন্ট ৬ মাস আগে দিলেও এই নির্বাচনটা এভাবে হইতো না বলেই আমার ধারনা; এই অপরাধবোধ কই রাখবেন সেই ব্যাপারে আমার কোন পরামর্শই নাই; একটা অবজার্ভেশন জানাইতে পারি মাত্র–১৯৭১ সালে বুদ্ধিজীবীদের হত্যার খারাপ ফল মনে হয় এইটাই যে–আমাদের বেকুবিগুলি শুরুতেই বুঝতে পারার লোকগুলি মরে গেছে তখন, ওই পদগুলি কতক বুদ্ধিহীন লোক দখল করে ফেলছেন সেই সুযোগে! /৫ জানু ২০১৪

[iframely url=https://www.facebook.com/rk.manu/posts/10151823036777027/]