রক মনু

হোমো অফেন্সিভ, রঠা না

২৯ মার্চ, ২০১৬

এরশাদের প্রতি ‘আসল পোলা’দের সেক্সুয়াল জেলাসি’র কথা কইতেছিলাম কালকে। এইটার আরেকটা ইন্ডিকেশন পাইবেন এরশাদকে ‘হোমো’ নামে ডাকার ভিতর; তবে জেলাসির লগে মা-বইন-বউদের লইয়া ইনসিকিউরিটিও আছে এরশাদের ব্যাপারে; ‘হোমো’ ডাকার ভিতর সেইটা ভালো মালুম হয়।

-------------------------

মাইয়াদের ভিতর এরশাদের পপুলারিটি রেজিস্ট করতে ভালো কামে দিতে পারে ‘হোমো’ হিসাবে ওনারে পরিচয় করাইয়া দেওয়াটা। বাট একই লগে আরো দুয়েকটা বড় ঘটনা ঘটতে শুরু করে এই নামে ডাকায়।

এই ডাকাডাকির ভিতর দিয়া আপনে সমাজে সমকামীদের ব্যাপারে স্টিগমা/ঘেন্না ছড়াইতে থাকেন আসলে–খুবই অফেন্সিভ; জীবন-পার্টনার-সেক্সুয়ালিটি ইস্যুতে যদি মানুষের বাছাই করার হক আপনি মানেন, সেক্সুয়ালিটির ভিত্তিতে সামাজিক ইনইক্যুয়ালিটি না ঘটাবার পক্ষে থাকেন, মানুষের ডেমোক্রেটিক রাইটের দুশমন না হইলে হোমোসেক্সুয়ালদের প্রতি এমন দুশমনী করতে পারেন না আপনি।

আপনে মডার্ন-স্কুলশিক্ষিত–আপনে অমন, কিন্তু দ্যাখেন–আমাদের সমাজ তার যাবতীয় অশিক্ষা লইয়া সেই কবে থেকে সমকামিতারে না দেইখা থাকতেছে, পারমিশন দিতাছে সমকামিতারে।

আমাদের সমাজে দুইটা সাবালক পোলা বা মাইয়া একসাথে ঘুমাইলে কোন আপত্তি করে না; মা-বাপ পোলার বন্ধু আইসা পোলার লগে এক বিছানায় রাইত কাটাইলে আপত্তি করে না, মাইয়ার বান্ধবীরে লইয়া আপত্তি করে না।

আমাদের সমাজে দোস্ত/মিতা/সখীরা একসাথে থাকে-ঘুমায়; এইটা একই লগে সমকামিতা এবং এক্সট্রা-ম্যারিটাল সেক্সলাইফের অনুমোদন; কেবল হেটারোসেক্সুয়াল সেক্সের ব্যাপারে বিয়ার প্রেশার দেয়; এই প্রেশারের সামাজিক লজিক মে বি বাচ্চা-কাচ্চা/ইনহেরিটেন্স লইয়া ঝামেলা এড়ানো।

সমকামিতা এবং ব্যাভিচার পারমিট করা এবং এগুলির সেলিব্রেশন পারমিট করা দুই জিনিস।

বি.দ্র. আরেকটু লিখতে চাইছিলাম, বাট এক বন্ধু আসছে…

২৮ মার্চ, ২০১৬

ইসলামের চাইতেও কড়া ধর্ম দরকার স্টেট রিলিজিয়ন হিসাবে, সেই জন্যই ওনারা সেক্যুলারিজম ধর্ম চাইছেন স্টেট রিলিজিয়ন হিসাবে।

ওনারা দেখতাছেন, ইসলাম বড়ো ঠিলাঢালা; এরশাদের এক্সট্রা-ম্যারিটাল সেক্স লাইফে মোসলমানদের সমস্যা নাই, এই ব্যাভিচার ইসলাম বরদাশত করতে পারে, বাট দমন করতে চাইতাছে সেক্যুলারিজম। স্টেট রিলিজিয়ন ইসলাম বইলাই তো সেক্যুলারিজমের পাথর লাগতাছে না এরশাদের গায়ে!

আমি ভাবি, এরশাদের পতনে পিপলের মুভমেন্ট কত ভাগ দায়ী আর দেশের সামরিক-বেসামরিক হর্তাকর্তাদের সেক্সুয়াল এনভি দায়ী কতটা! মেয়েদের ভিতর এরশাদের পপুলারিটি আরো আরো আসল পোলারে কম তো পোড়ায় না–সেক্যুলারিজমের মতো কড়া ধর্ম ছাড়া সাইজ করা যাইতাছে না–মরেও তো না, রঠার চাইতেও বেশি দিন বাঁইচা আছে, কবিতাও দুইটা বেশি লেইখা ফেলে কিনা…!