রক মনু

কদ্দূর পাবলিক হইতে পারা উচিত?

হোয়াইট ভালো লাগে, সারা জিন্দেগি হোয়াইট পার্টনার লইয়া কাটাইছেন, এমন কেউ রেসিজম বিরোধী পলিটিক্স করলে কি কোন হিপোক্রিসি হয়? না।

পার্সোনাল ইজ পলিটিক্যাল, কিন্তু প্রাইভেট আর পাবলিক স্পেসে পলিটিক্সের ডাইমেনশনে বহু তফাত। সমাজ যদি মানুষকে দখল কইরা থাকে, তবু সমাজে থাকা মানে একটা চুক্তির ভিতরে থাকা। প্রাইভেট থিকা আপনে যদি নিজের পজিশন লইয়া পাবলিকে যান তাইলে সেইটা পলিটিক্যাল এজেন্ডা হয়, পাবলিক পজিশন লওয়া মানে আপনে সেই রাজনীতির প্রোপাগান্ডা চালাইতেছেন। পাবলিক পজিশন এবং প্রোপাগান্ডার আরেকটা দিকও আছে, এইটা আপনে মরার পরেও থাইকা যাইতেছে, প্রাইভেট মানে আপনে মরার পরে নাই। সামাজিক বা পাবলিক তাইলে বিয়ন্ড প্রাইভেট, দুই স্পেসের পলিটিক্সেও এই তফাত।

-------------------------

সামাজিক চুক্তিতে আপনারে যা যা মানতে হয় সেইগুলা আপনে প্রাইভেট লাইফে নাও মানতে পারেন। অসুবিধা নাই।

আমাদের দরকার হইলো কতগুলা সামাজিক ছাড় দিয়া একটা পোক্ত চুক্তি করা যাতে আমাদের প্রাইভেট স্পেসে হামলা না হয়।

দেখেন, সিগারেট খাওয়ার প্রোপাগান্ডা চালানো বেআইনী, কিন্তু সিগারেট আপনে খাইতে পারেন। সিগারেট খাইয়া আপনে সিগারেট বিরোধী রাজনীতিও করতে পারেন। আমাদের সেক্সুয়াল অরিয়েন্টেশন, বিয়ার প্রাকটিসের সীমা, ড্রাগস, ড্রিংকিং, ড্রেসআপ–এইসব ব্যাপারে কতগুলা পাবলিক পজিশন লইতে পারতেছেন না, কতগুলা বেআইনী, কতগুলা আইনে মানা না করলেও অসামাজিক হিসাবে দেখে লোকে। এখন কোনটা চান আপনে? এইসব লইয়া প্রোপাগান্ডা চালাইতে নাকি প্রাইভেট স্পেসে কে কি করে সেই ব্যাপারে যেন খবরদারি না করে কেউ, উঁকি মারে–নজরদারি করে স্টেট-সমাজ, সেইটা বেশি বন্ধ করা দরকার, নাকি সমাজে ধরেন ড্রাগ আরো ছড়াবার পলিটিক্স কইরা ড্রাগ-মাফিয়ার মার্কেট রিপ্রেজেন্টেটিভ হিসাবে বেতন ছাড়া কাম করা?

অরিয়েন্টেশনে যারা স্টেইট না তাগো বিয়ার প্রোপাগান্ডা চালাইতে চান। বিয়া তো স্ট্রেইটদের বানানো একটা ইন্সটিট্যুশন, প্রোপার্টি এবং পোলামাইয়ার হিসাব রাখতে বানাইছে সমাজ, আপনে কেন সেইটারে আরো পাওয়ারফুল করতে চান? বা আরেকভাবে দেখেন, আপনে তো চার্চে বৌদ্ধের একটা মূর্তি রাখার দাবি করেন না! বিয়া তো স্ট্রেইটদের ক্লাব একটা, আপনে কেন সেইখানে ডাকতেছেন!

আপনে কইতে পারেন, সমাজে যা কিছু আছে তাতে সবার ভাগ আছে, তাই বিয়ার ভাগও দিতে হবে। আপনের এই দাবি লজিক্যাল ভাবার মুশকিল হইলো, এইটা সমাজের জন্য সুইসাইডাল! রিপ্রোডাকশন লাগবে সমাজের, নাইলে তো সমাজই থাকতেছে না! আপনে টেস্টটিউব বেবি বানাইবেন খালি? তাইলে কিন্তু আপনে এলিটিস্ট/ধনীদের লোকহইতেছেন তুমুল! গরিবেরা যেইটা খেলতে খেলতেই পারে, খরচ নাই কোন সেইটা করতে আপনে কত কত খরচের আয়োজনের রাস্তা দেখাইতেছেন!

আবার কইতে পারেন, আমি তো স্ট্রেইটদের ঠেকাইতেছি না! সমাজের প্যানিক আর সারভাইভাল ইস্যু এইভাবে কাম করে না। কোন একটা প্রোপাগান্ডা, যেইটা পুরা সমাজে ছড়াইলে সমাজ আর থাকতে পারবে না সেইটা শুরুতেই চিনতে পারে সমাজ, শুরুতেই থামাইতে চায়। অন্যরে জোর করার দরকার নাই আপনার, দুনিয়ায় পিসফুলি ছড়াইছে কত কিছু, জোর কইরা খাওয়াইতে হয় নাই। দেখেন, চা খাওয়াইতেই ব্রিটিশরা সবচে কম জোরাজুরি করছিল, খুবই পিসফুলি এইটা সারা দেশ দখল কইরা নিছে না? আগে যেসব জায়গায় শরবত দেওয়া হইতো তার অনেকগুলাতেই চা দখল করছে, শরবত খেদাইয়া দিছে পিসফুলি! স্টারডমের এই হাই টাইমে পিসফুলি দখল করা আরো সোজা হইয়া উঠছে!

সো, সমাজের কতগুলা লজিক আছে। সমাজ অনেক সময়ই ব্যক্তিরে খুন করে, হামলা করে। হামলার পিছে যদি পপুলার সাপোর্ট থাকে তাইলে হামলা ঠেকাবার রাস্তা প্রায় নাই! আমরা তাইলে কি করবো? আমি কতগুলা ছাড় দিয়া চুক্তি করার পক্ষে। আমি সমাজকে কতগুলা জিনিস দিয়া নিজের জন্য আরামের একটা স্পেস চাই। সমাজের হামলা কমাইতে চাই, এই ব্যাপারে আমি স্ট্রেট আর সমাজের ডায়ালেকটিক রিলেশনকে ম্যানিপুলেট করতে চাই। আমি চাই প্রাইভেট স্পেসে স্টেটের নাক ঠেকাইতে সমাজকে ইউজ করুক লোকে, সমাজের নাক ঠেকাইতে স্টেটকে ইউজ করুক।

সমাজে লেখা বা রিটেন কোন কোড নাই, স্টেটের আছে। স্টেটকে যদি তার কোড অব কনডাক্টের ভিতর আমরা আটকাইতে না পারি তাইলে স্টেটকে দিয়া সমাজের নাক ঠেকানো যাবে না। আমার তাই পয়লা এজেন্ডা স্টেটকে তার কোডের ভিতর আটকানো, সেইজন্য সমাজের লগে দোস্তি করতে হবে।

১২ জুলাই ২০১৭